বেশ কিছুদিন ধরে দেশের রাজনীতির অলিন্দে তিনটি ইংরেজি অক্ষরের যুগলবন্দী কে অত্যন্ত পরিমাণে ঘোরাফেরা করতে দেখা যাচ্ছে।

বেশ কিছুদিন ধরে দেশের রাজনীতির অলিন্দে তিনটি ইংরেজি অক্ষরের যুগলবন্দী কে অত্যন্ত পরিমাণে ঘোরাফেরা করতে দেখা যাচ্ছে। সেই শব্দটি হল‌ NRC যা নিয়ে দেশ তথা রাজ্য রাজনীতিতে এক প্রবল জোয়ার সৃষ্টি করেছে। NRCঅর্থাৎ ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেনস, এটি একটি দেশের নাগরিকদের নাগরিকত্ব নিভুক্ত করণের একটি মাধ্যম বলা যেতে পারে। কয়েকদিন আগে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আসাম সরকারের সহযোগিতায় ভারত বাংলাদেশের বর্ডার আসাম রাজ্যের নাগরিকদের ভারতীয় নাগরিকত্বের তথ্য অর্থাৎ NRC প্রকাশ করা হয়েছে । সেই নিয়ে দেশ তথা রাজ্য রাজনীতিতেপ্রবল সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপি সরকারকে।এখানে প্রশ্ন উঠতেই পারে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্র সরকার তো নয় ,এই প্রশ্ন উঠেছে কিন্তু বিরোধীদের সমালোচনার বাঁধ সেই প্রশ্নের কোন রূপ উত্তর দেয়নি। কিন্তু আসল প্রশ্ন হল আমার দেশ সকলের আগে দেশের সমস্ত কিছুতে আমার আগে অধিকার পাওয়া উচিত। কিন্তু দেখা যাচ্ছে বাইরের
প্রতিবেশী দেশ থেকে আগত বহু মানুষ সেই অধিকার কেড়ে নিচ্ছে দেশের নাগরিকদের কাছ থেকে‌। ফলস্বরূপ দেশের নাগরিকরা বেকার ও অভুক্ত অবস্থায় মারা যাচ্ছেন। এছাড়া বাইরের দেশ থেকে বিনা অনুমতিতে আগত মানুষরা ভারতের মধ্যে একাধিক সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপ ঘটিয়ে চলেছে। তার উদাহরণ আমরা অতীতে অনেক জায়গায় অনেক রকম ভাবে দেখতে পেয়েছি। নির্দেশ সুপ্রিম কোর্ট দিক কিংবা কেন্দ্র সরকার NRC তথ্য প্রকাশ করা যেহেতু দেশের একটি বৈধ প্রক্রিয়া , সেহেতু বিরোধীরা NRCকে কেন রাজনীতির মঞ্চে পরিণত করছে। দেশের নিরাপত্তা দেখার দায়িত্ব শুধু কেন্দ্র সরকার কিংবা দেশের সৈন্যদের নয় দেশের নিরাপত্তার দায়িত্ব দেশের সকল নাগরিকদের । পাশাপাশি দেশের মাটিতে ভূমিষ্ঠ হওয়া মানুষজনদের সবার আগে সমস্ত সুযোগ-সুবিধা ভোগ করার মৌলিক অধিকার আছে বলে মনে করা হয়।।